ফেনীতে আঞ্চলিক গণিত উৎসবের উদ্বোধন করা হচ্ছে। জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান জাতীয় পতাকা, ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত নাথ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড ও ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ফেনী শাখার ব্যবস্থাপক মো. হারুন উর রশীদ খান আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন। ছবি: ছবি: আবু তাহেরফেনীতে আঞ্চলিক গণিত উৎসবের উদ্বোধন করা হচ্ছে। জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান জাতীয় পতাকা, ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত নাথ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড ও ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ফেনী শাখার ব্যবস্থাপক মো. হারুন উর রশীদ খান আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন। ছবি: ছবি: আবু তাহের

 

আমাদের জীবন চলার পথে গণিত খুব দরকার, গণিতকে ভয় না পেয়ে জয় করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ফেনী জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান।

আজ মঙ্গলবার সকালে ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত আঞ্চলিক গণিত উৎসবের উদ্বোধন করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. আমিন উল আহসান এ কথা বলেন। তিনি বলেন, জ্ঞানের পরিধি, বুদ্ধি গণিতের মাধ্যমে বৃদ্ধি পায়।

জেলা প্রশাসক বলেন, গণিত একটি আন্তর্জাতিক ভাষা। পৃথিবীর সব দেশে গণিতের ভাষা এক। এ উৎসব শিশুদের ভালো স্বপ্ন দেখার, বড় হওয়ার সুযোগ করবে।

এর আগে জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান জাতীয় পতাকা, ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত নাথ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড ও ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক ফেনী শাখার ব্যবস্থাপক মো. হারুন উর রশীদ খান আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন।

বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির আয়োজনে, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতায়, প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় ও বন্ধুসভার সহযোগিতায় ফেনীতে আঞ্চলিক গণিত উৎসব শুরু হয়েছে। উৎসবে ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালীর ৮৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৯৭৪ শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। ছবিটি মঙ্গলবার সকালে ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে তোলা। ছবি: আবু তাহেরপ্রথম আলো ফেনী বন্ধুসভার সভাপতি জহিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির আয়োজনে, ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতায়, প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় ও বন্ধুসভার সহযোগিতায় এ উৎসবে ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী জেলার ৮৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৯৭৪ শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে।

সকাল সাতটা থেকে ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় মাঠে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা জড়ো হতে শুরু করেন। সকাল সোয়া নয়টায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করা হয় এবং পৌনে ১০টায় শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা শুরু হয়।