মুনির হাসান l

বছর ঘুরে আবার এসেছে গণিত উৎসব—প্রাণের মেলা। ত্রয়োদশ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড, ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংক–প্রথম আলো গণিত উৎসব ২০১৫। শুরু হয়েছিল প্রথম আলোর পাতায়, ২০০১ সালে। জাফর ইকবাল স্যার আর কায়কোবাদ স্যার প্রতি সপ্তাহে পাঁচটি করে গাণিতিক সমস্যা ছাপাতেন। মুসা ইব্রাহিম পোস্টকার্ডে আসা উত্তরগুলো যাচাই করতেন। সেই নিউরনে অনুরণন থেকে আজকের ত্রয়োদশ গণিত অলিম্পিয়াড। শৈশব পার হয়ে এখন দুরন্ত কৈশোরে। মাত্র ৩ পয়েন্ট দিয়ে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে আমরা পদক জেতাটা শিখে নিয়েছি এখন। রুপার পদকও পেয়েছি। এর পাশাপাশি দেশে গাণিতিক সমস্যা সমাধানের একটি সংস্কৃতিও ডানা মেলতে শুরু করেছে। গণিত অলিম্পিয়াডের দেখানো পথ ধরে দেশে বিষয়ভিত্তিক অলিম্পিয়াডও চালু হয়েছে। তবে দেশের সব স্তরের শিক্ষার্থীদের কাছে আমরা এখনো উৎসবকে পৌঁছাতে পারিনি। তাই এবার থেকে যেসব জেলায় এর আগে গণিত উৎসব হয়নি, সেসব জেলায় গণিত উৎসব আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এবার ২৪টি আঞ্চলিক উৎসবের ১১টিই নতুন।
সচেতনতা ও উৎসাহ সৃষ্টির পাশাপাশি গাণিতিক দক্ষতা বাড়ানোয় আমাদের উদ্যোগকে আমরা প্রসারিত করছি নানা দিকে। প্রস্তুতির জন্য লেখা হচ্ছে বই। এর মধ্যে রয়েছে আব্দুল কাইয়ুমের গণিতের জাদু। আবার গণিত অলিম্পিয়াডের একাডেমিক কর্মীরা প্রস্ত্ততির জন্য বিডিএমও প্রস্তুতি নামের বই তৈরি করেছে। শিক্ষক ডটকমে শুরু করা হয়েছে ভিডিওভিত্তিক গণিতের বিভিন্ন কোর্স।
২০১৫ সালে গণিত ক্যাম্পের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। ২০১৪ সালে ঢাকার বাইরে একটি ক্যাম্পের সব আয়োজন হলেও বিরূপ পরিস্থিতিতে সেটি সম্পন্ন করা যায়নি। ২০১৫ সালে ঢাকার বাইরে একাধিক গণিত ক্যাম্পের আয়োজন করার পরিকল্পনা রয়েছে।
এ ছাড়া এই প্রথমবারের মতো গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির উদ্যোগে ও একাডেমিক সহযোগিতায় দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গণিত শিক্ষকদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হবে। শিক্ষকদের নিয়ে কাজ করে এমন সংগঠন ইচ্ছা করলে এ ব্যাপারে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে।
গণিতে দক্ষতা বাড়ানো একটি জীবনব্যাপী প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ায় আমাদের শিক্ষার্থীদের যুক্ত করতে পারাটাই এই স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রমের সফলতা। বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির আয়োজনে একঝাঁক নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষাবিদ ও শিক্ষকের নেতৃত্বে সারা দেশে প্রথম আলো বন্ধুসভা ও গণিত অলিম্পিয়াডের স্বেচ্ছাসেবকেরা কাজ করে চলেছেন।
আমাদের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক। ব্যবস্থাপনার সব ঝক্কি-ঝামেলা সামলাচ্ছে প্রথম আলো। তাদের সবার প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা।
গণিত উৎসবের জয় হোক।