আজ ১৬ মার্চ শেষ হয় নবম বাংলাদেশ গণিত ক্যাম্প। একাদশ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড থেকে নির্বাচিত সেরা ২৭ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে আয়োজন করা হয় এই ক্যাম্পের। ডাচ-বাংলা ব্যংকের পৃষ্ঠপোষকতা ও প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি আয়োজন করে এই গণিত ক্যাম্পের। ঢাকার আদাবরের পদক্ষেপ ইনস্টিটিউট অব ডেভলপমেন্ট অব ম্যানেজমেন্টে ৯ মার্চ শুরু হয় এই আবাসিক ক্যাম্প। গতকাল শুক্রবার ১৫ মার্চ রাতে অনুষ্ঠিত ক্যাম্পের সনদ বিতরণী ও সমাপনী পর্বে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ প্রকেৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা যে মেধাবী এটা এখন আন্তর্জাতিক ভাবে প্রমানিত। আমাদের শিক্ষার্থীরা ম্যাথ অলিম্পিয়াড, ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াডসহ আরও নানা মেধাভিত্তিক প্রতিযোগিতায় বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। আমি আশা করি এই ক্যাম্প থেকে এবার যারা আইএমওর জন্য নির্বাচিত হবে, তারা বিগত বছরের সাফল্যকে ধরে রেখে বিশ্বের সামনে দেশকে আরো ভালোভাবে উপস্থাপন করবে।' অনুষ্ঠানে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুল হাসান বলেন, আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা গণিত অলিম্পিয়াডের সঙ্গে যুক্ত। ডাচ-বাংলা ব্যাংক শুধু ব্যাংকই নয় আরো বেশি কিছু করতেই এ ধরনের উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত থাকে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেণ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান, ড্যাফোডিল আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জাবেদ মোর্শেদ , বুয়েটের শিক্ষক অভীক রায়, একাডেমিক কাউন্সিলর সৌমিত্র চক্রবর্তী, গণিত অলিম্পিয়াডের সমন্বয়ক বায়েজিদ ভূঁইয়াসহ অনেকে।

Math camp

ক্যাম্পে শিক্ষার্থীদের গণিতের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, আলোচনা করা হয় বিগত বছরগুলোতে আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের প্রশ্নপত্র নিয়েও। এশিয়ান প্যাসেফিক ম্যাথ অলিম্পিয়াডের পরীক্ষাসহ মোট ৬টি ভিন্ন ধরনের পরীক্ষা এবং গাণিতিক মেধা ও যোগ্যতা যাচাইয়ের আয়োজনে অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা। এই ক্যাম্পের ফলাফলের ভিত্তিতে ২০১৩ সালে কলম্বিয়ায় অনুষ্ঠেয় ৫৪তম আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের (আইএমও) জন্য বাংলাদেশ গণিত দল নির্বাচন করা হবে। গত বছর আইএমওতে রৌপ্যবিজয়ী ধনঞ্জয় বিশ্বাস, ব্রোঞ্জ বিজয়ী সৌরভ দাস, নূর মোহাম্মদ শফিউল্লাহ, অনারেবল মেনশন অর্জনকারী মির্জা তানজিম শরীফ ছিল ক্যাম্পে প্রশিক্ষক হিসাবে। ক্যাম্পে আসা চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল ও কলেজের আহমেদ জাওয়াদ চেৌধুরি জানায়, প্রতিদিন রুটিন অনুসারে ক্লাস, প্রচুর অঙ্ক করা প্রথমে একটু সমস্যা হয়েছে, পরে সবার সহযোগিতায় ঠিক করে নিয়েছি'। ৭ দিনে বিভিন্ন সেশনের পুরো পরিকল্পনা করেছেন বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ কোচ ড. মাহবুব আলম মজুমদার।