ঘড়ির কাটায় সকাল সোয়া নয়টা। শীতের সকালের কুয়াশা কাটিয়ে তখন শিক্ষার্থীদের পদচারণে মুখরিত ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় মাঠ। তারা এসেছে গণিত জয়ের স্বপ্ন নিয়ে।

‘গণিত শেখো—স্বপ্ন দেখো’ স্লোগানকে সামনে রেখে গতকাল রোববার দেশব্যাপী শুরু হয় ‘ডাচ্-বাংলা ব্যাংক-প্রথম আলো গণিত উৎসব ২০১৯ ’। আজ সোমবার ছিল ঠাকুরগাঁওয়ে হয়ে গেল বাছাই পর্ব। ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি আয়োজন করে এই উৎসবের।

এই বাছাই পর্বের উদ্বোধন করেন সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শাহানা খান। তিনি বলেন, ‘গণিত মানুষকে সমস্যার সমাধান করতে শেখায়। যে গণিতে ভালো, সে সবকিছুতেই ভালো। প্রথম আলোর সহযোগিতায় দেশের গণিতবিদেরা অনেক দূর এগিয়ে গেছেন। তোমরাও এগিয়ে যাবে। এই প্রত্যাশা রাখি।’

গণিতের সমস্যা সমাধানে মগ্ন শিক্ষার্থীরা। গণিত অলিম্পিয়াড উৎসব, ঠাকুরগাঁও, ৭ জানুয়ারি। ছবি: প্রথম আলোগণিতের সমস্যা সমাধানে মগ্ন শিক্ষার্থীরা। গণিত অলিম্পিয়াড উৎসব, ঠাকুরগাঁও, ৭ জানুয়ারি। ছবি: প্রথম আলোপরে অংশগ্রহণকারীদের নির্দেশনা দেন বন্ধুসভার উপদেষ্টা ও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক ফরহাদুল ইসলাম। সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয় উৎসবের মূল প্রতিযোগিতা। এতে ঠাকুরগাঁওয়ের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রাথমিক, নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক—এই চার ক্যাটাগরিতে অংশ নেন। পরীক্ষা চলে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত।

পরীক্ষা শেষে ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ফাহমিদ মুজিব মিহুন বলে, ‘আমি গণিত ভালো করে শিখতে চাই। তাই ছুটে এসেছি।’

জেলার বাইরে থাকার কারণে রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি আরকে স্টেট উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুমাইয়া শারমিন। গণিত অলিম্পিয়াডের কথা শুনে সকালেই ছুটে আসে ভেন্যুতে। সুমাইয়া বলে, ‘আমি প্রতিবার গণিত অলিম্পিয়াডে অংশ নেই। এবার আয়োজনের কথা শুনে মাকে নিয়ে উৎসবে ছুটে এসেছি। না এলে মিস করতাম।’

দেশের শিক্ষার্থীদের গাণিতিক মেধার উৎকর্ষ বৃদ্ধি ও ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় ৬০ তম আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের (আইএমও) জন্য বাংলাদেশ দল নির্বাচনের লক্ষ্যে দেশব্যাপী এ গণিত উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। প্রথমে ৬৪ জেলায় বাছাই অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হবে। বাছাই অলিম্পিয়াডের ফলাফল ঘোষণা করা হবে ম্যাথ অলিম্পিয়াডের ওয়েবসাইটে (www.matholympiad.org.bd)।

বাছাইপর্বের বিজয়ীদের নিয়ে আগামী ফেব্রুয়ারিতে ১২টি শহরে অনুষ্ঠিত হবে আঞ্চলিক পর্ব। তারপর আঞ্চলিক পর্বের বিজয়ীদের নিয়ে মার্চে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় উৎসব। ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতা ও প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির আয়োজনে ১৭ তম বারের মতো এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।