অনলাইনে হওয়ায় উৎসবের মেজাজ ছিল না। কিন্তু কম্পিউটার স্ক্রিনের সামনে বসা হাজারো খুদে গণিতবিদের বুক দুরু দুরু করেছে। কারণ, অনলাইনে ঘোষিত হয়েছে এবারের ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংক-প্রথম আলো গণিত উৎসবের জাতীয় পর্যায়ের ফল। প্রায় ৬৯ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে ধাপে ধাপে বেছে নেওয়া হয়েছে চার ক্যাটাগরির বিজয়ী ৫৯ জনকে। এর মধ্যে পাঁচজন হয়েছে সেরাদের সেরা।

ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংক-প্রথম আলো গণিত উৎসবের জাতীয় পর্বের ফল ঘোষণা করার জন্য আজ বৃহস্পতিবার জুম প্ল্যাটফর্মে অনলাইন সভার আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহসভাপতি অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ ও ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মো. শিরিন।
বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহসভাপতি অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ ও ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মো. শিরিন।

 

অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহসভাপতি অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম ও আনিসুল হক, ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আবুল কাশেম মো. শিরিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সভাপতি সদ্য প্রয়াত জাতীয় অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীর স্মরণে ‘আলোর পথযাত্রী’ শিরোনামে প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়। বক্তাদের বক্তব্যেও ছিল জামিলুর রেজা চৌধুরীকে স্মরণ। অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলেন, ‘এই করোনাকালেও আমাদের খুদে গণিতবিদেরা তাদের গণিতচর্চা অব্যাহত রেখেছে, এটা খুবই আনন্দের।’ তিনি আন্তর্জাতিক ব্লকচেইন অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের দুটি পদকপ্রাপ্তির খবর জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের সন্তানদের জন্য সামনের দিনে আরও চ্যালেঞ্জের ব্যবস্থা করতে হবে।’

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মো. শিরিন বলেন, করোনাকালেও বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের এই প্রাণের উৎসবে যুক্ত থাকতে পেরে ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংক গর্বিত। তিনি আশা করেন, ‘অনলাইনে অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক গণিত উৎসবে আমাদের শিক্ষার্থীরা তাদের সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে।’

প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম শিক্ষার্থীদের গণিতের সাফল্যের জন্য করণীয় ঠিক করতে পরামর্শ দেন। প্রয়াত অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীর সুডোকু, ক্রেসওয়ার্ড মেলানোর কথা উল্লেখ করে মেধা শাণিত করার ক্ষেত্রে এসবের তাৎপর্য তুলে ধরেন তিনি।

গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সহসভাপতি মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, অনলাইনে আসল গণিত উৎসবের ছোঁয়া পাওয়া যায় না। কিন্তু তারপরও শিক্ষার্থীদের এই উৎসাহ তাদের এগিয়ে নিয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

জাতীয় পর্বে মোট ৫৯ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। তাদের মধ্যে প্রাইমারি ক্যাটাগরিতে ১১ জন, জুনিয়র ক্যাটাগরিতে ১৬ জন, সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে ১৪ জন ও হায়ার সেকেন্ডারিতে ১৮ জন। এদের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়নস হয়েছে যথাক্রমে প্রাইমারি ক্যাটাগরিতে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. রাফসান সোবহান, জুনিয়র ক্যাটাগরিতে স্যার জন উইলসন স্কুলের তাহমিদ আরমান ও রংপুর জিলা স্কুলের শাহরিযার হোসেন, সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তাহমিদ হামিম চৌধুরী এবং হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে নটর ডেম কলেজের রাইয়ান জামিল।

এ বছরের সেরা গণিত ক্লাবের সম্মান পেয়েছে বোসন বিজ্ঞান সংঘ।

এর আগে গত জানুয়ারি মাসে সারা দেশের নিবন্ধিত ৬৯ হাজার ১৯০ শিক্ষার্থী ২৮ ফেব্রুয়ারি বাছাই অলিম্পিয়াডে অংশ নেয়। বাছাইপর্বের নির্বাচিত ১৩ হাজার ৬২০ জন ২৯ মে আঞ্চলিক পর্ব এবং আঞ্চলিকের বিজয়ী ১ হাজার ৩১২ জন ৩ জুলাই অনলাইন জাতীয় অলিম্পিয়াডে অংশ নেয়। জাতীয় উৎসবের বিজয়ীদের নিয়ে পরবর্তী সময়ে গণিত ক্যাম্প আয়োজন করা হবে। তাদের মধ্যে নির্বাচিত সেরা ছয় শিক্ষার্থী এ বছরের ২১-২২ সেপ্টেম্বর অনলাইনে অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করবে।

ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতায় ও প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি গণিত উৎসব ২০২০ ও ১৮তম বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড আয়োজন করেছে। ফল পাওয়া যাবে online.matholympiad.org.bd এবং prothomalo.com এই ঠিকানায়।

আব্দুল কাইয়ুম, আনিসুল হক ও মুনির হাসান
আব্দুল কাইয়ুম, আনিসুল হক ও মুনির হাসান

 

বিজয়ীদের তালিকা

প্রাইমারি ক্যাটাগরি

চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়নস হয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. রাফসান সোবহান (১০২৪৬৩)। এ ছাড়া অন্য বিজয়ীরা হলো ইউনাইটেড ইসলামিয়া গভ. হাইস্কুলের সাবিত হাসান (১০৮৫৫৭), সিদ্ধিকস ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের পূর্বিতা সাহা (১০৯২৭০), দিনাজপুর জিলা স্কুলের সাজিদুল হক (১১১৩৯৭), বগুড়া জিলা স্কুলের আবদুল্লাহ আল জারিফ (১০৩৬৫৪), ময়মনসিংহ জিলা স্কুলের খন্দকার ফারহান ইশরাক (১০৩৯৩৮), নবপরান মডেল স্কুলের মুসাইব বিন আলমগীর (১১১৭৫৭), ঢাকার কুর্মিটোলার বি এ এফ শাহীন কলেজের আহনাফ তাহমীদ (১২০৯৭০), মাইলস্টোন স্কুলের তৌসিফ ইসমাম (১১৬৩৭০), খুলনা জিলা স্কুলের খান রাফিউল ইসলাম লিয়ান (১০৫৭৭৫), নওগাঁ গভ. গার্লস হাইস্কুলের নাফিসা তাবাসসুম (১১৩৯৭৪)।

জুনিয়র ক্যাটাগরি

চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়নস হয়েছে যৌথভাবে স্যার জন উইলসন স্কুলে তাহমিদ আরমান (১০৯১৭৩) ও রংপুর জিলা স্কুলের শাহরিযার হোসেন (১১১৫২১)। এ ছাড়া জুনিয়র ক্যাটাগরিতে বিজয়ীরা হলো সেন্ট জোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলের ইরতিজা হাসানাত মহিউদ্দিন (১০৩৭৭৪), ময়মনসিং জিলা স্কুলের দেবপ্রিয়া সাহা রায় (১১২২০৫), স্কলাস্টিকার ওয়াফি মারজোউক মোহাম্মদ (১০৪৫০৭), ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের জিতেন্দ্র বড়ুয়া (১০২৯২১), দিনাজপুর জিলা স্কুলের আরিক হোসাইন ভূঁইয়া (১০৮৫৪৪) ও আসনাফ মুহতাদী (১০৪৯১৮), স্কলার্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবনীতা পাল (১০৫০৩৬), খুলনা জিলা স্কুলের এস এম আবদুল ফাত্তাহ (১০৬৫৬৯), ময়মনসিং জিলা স্কুলের তারিকুর রহমান তুর্য (১১৯৩১৯), কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজের মংথুইনু মারমা (১২৫৩৪৪), রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের সৌগত ঘোষ অঙ্কুর (১০২৩৫৬), ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নুজহাত আহমেদ দিশা (১০৪৬১২) এবং উদয়ন উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সৌমিত্র শোভন দ্বীপ (১০৮৭৬৭) ও সুদীপ্ত সাগর নীল (১০৩৭৪০)।

সেকেন্ডারি ক্যাটাগরি

চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়নস হয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তাহমিদ হামিম চৌধুরী (১০৩৮৯৯)। এ ছাড়া অন্য বিজয়ীরা হলো রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের আরশাদ মাহমুদ আয়মান (১০৪১৮৫), মোহাম্মদ সাঈদ (১১০৬৬০), শাফিন আহমেদ (১০৩৯৫২), নাফিস আলম আদিয়াত (১০৬৭২১) ও সিফাত শাহরিয়ার (১০৬৩৮৩), বগুড়া জিলা স্কুলের অরিত্র দাস (১০২৮১৫), ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ ময়মনসিংহের মোহাম্মদ ফুয়াদ আল আলম (১০৪৩৯৭), ময়মনসিংহ জিলা স্কুলের তাজিব হোসাইন খান (১০২৬২২), গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের জুবায়ের আহমেদ আক্তার (১০৫০৩০), ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল চট্টগ্রামের অরিত্র বড়ুয়া (১০৩০৬৬), বরিশাল ক্যাডেট কলেজের মুহতাসিন আল কাফি (১০২৮৭৭), ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ফকির আল মাহির (১২৪৭৫৪) এবং বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজের অভিষেক মজুমদার (১০৪৩২৯)।

হায়ার সেকেন্ডারি

চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়নস হয়েছে নটর ডেম কলেজের রাইয়ান জামিল। এ ছাড়া অন্য বিজয়ীরা হলেন ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের আহমেদ ইত্তিহাদ (১০৯৯১১), এসওএস হারম্যান মেইনার স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঢাকার এম আহসান আল মাহির (১০২০৪২), নটর ডেম কলেজের তাসমিম রেজা (১০৩৫১০), রাজশাহী ইউনিভার্সিটি স্কুলের রুবাব রেদওয়ান সাঈদ (১১১৪০৯), নটর ডেম কলেজের মো. মিরাজুল হাসান ফারদিন (১০২৩৭৬), নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজ রাজশাহীর রুবাইয়াত জালাল (১০৪৬৬১), সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ ফরিদপুরের সৌমিত্র দাস (১০৩৩৯১), স্যার জন উইলসন স্কুলের ফরদিন হোসাইন (১২৬৭৩৩), নটর ডেম কলেজের আবদুল্লাহ আল রাফি মাহমুদ (১০২০৩৮), চট্টগ্রাম কলেজের মামনুন সিয়াম (১১১০৩১), নটর ডেম কলেজের ইমতিয়াজ তানভীর সিয়াম (১০২৮০৭), আনন্দ মোহন কলেজ ময়মনসিংহের মোহাম্মদ মারুফ হাসান রুবাব (১১৩৩৪৭), গর্বমেন্ট হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ চট্টগ্রামের অতনু রায় চৌধুরী (১০০১৭৯), সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলের সৈয়দ রেজওয়ানুল হক (১০৬৩৫৪), নওগাঁ গর্বমেন্ট কলেজের স্বরূপ সিদ্ধার্থ মণ্ডল (১০০২৬৭), সেন্ট জোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলের এস কে আশরাফুজ্জামান নাফিস (১০৫৬৭০) ও নটর ডেম কলেজের আল মুহিত মুক্তাদী (১০০২৪৮)।